Recent Post

পেপটিক আলসারের চিকিৎসা, ৫০ টি লক্ষণ ও রেপার্টরি।

পেপটিক আলসার (peptic Ulcer):

পেপটিক আলসার বা গ্যাস্ট্রিক বা অম্বল আমাদের দেশে অতি পরিচিত একটি রোগ। পাকস্থলী থেকে নিঃসৃত হাইড্রোক্লোরিক এসিড এবং পেপসিনের ক্রিয়ার ফলে পরিপাক তন্ত্রের কোন স্থানে ক্ষত বা ঘা সৃষ্টি হলে তাকে পেপটিক আলসার বলে।

কারণ(Cause):

সবার পাকস্থলীতেই এসিড-পেপসিন নিঃসৃত হয় যার ফলে খাদ্য পরিপাক হয়। পাকস্থলীর শ্লেষ্মা ঝিল্লীর স্বাভাবিক প্রতিরোধ ক্ষমতার কারণে এসিড-পেপসিন পাকস্থলীর দেয়ালকে ক্ষতি করতে পারেনা। কিন্তু জীবন যাত্রায় কিছু অনিয়মের কারণে এ স্বাভাবিক প্রতিরোধ ক্ষমতায় হের ফের হয়ে যায় এবং এসিড-পেপসিনের নিঃসরণ ও বেড়ে যায়। ফলে আলসার দেখা দেয় । পাকস্থলীতে খাবার যাওয়ার পরই শরীরের স্বাভাবিক প্রতিক্রিয়ায় এসিড-পেপসিনের নিঃসরণ বেড়ে যায়। কারণ এ খাবার গুলোকে হজম করার জন্য এসিড-পেপসিনের দরকার হয়।

আমাদের খাবার গ্রহণের জন্য প্রত্যেকেরই আলাদা আলাদা একটি সময় সূচি থাকে। কেউ দিনে ৪ ঘণ্টা অন্তর খায় কেউবা ৬ ঘণ্টা অন্তর কেউবা ১২ ঘণ্টা অন্তর। কিন্তু যে নিয়মেই খাবার গ্রহণ করিনা কেন তা নির্দিষ্ট হওয়া দরকার। কারণ শরীরের ভেতরে রয়েছে অদৃশ্য এক ঘড়ি যা আমাদের খাবার গ্রহণের সময়কে ঠিকই জেনে নেবে এবং আমাদের অজ্ঞাতসারে সে ওই সময় খাবার হজমের জন্য প্রয়োজনীয় রস নিঃসরণ করবে। কিন্তু কোন কারণে যদি এই স্বাভাবিক প্রক্রিয়া ব্যাহত হয় অর্থাৎ খাবার গ্রহণ অনিয়মিত হয়ে ওঠে তখনই দেখা দেয় বিপত্তি। পাকস্থলীতে খাবার যাচ্ছেনা কিন্তু সময় অন্তর এসিড-পেপসিন  নিঃসরণ ঠিকই হচ্ছে । এসিড-পেপসিন তো চুপ করে বসে থাকবেনা । তাদের চাই খাবার। খাবার না পেয়ে তারা পাকস্থলীর শ্লেষ্মা ঝিল্লীকে খেয়ে ফেলা শুরু করে। ধীরে ধীরে সেখানে ঘা হয়। আর তাকেই আমরা বলি পেপটিক আলসার। এ রোগটির নির্দিষ্ট কারণ জানা না গেলে ও বেশ কিছু ফ্যাক্টর বা কারণ গবেষণায় পাওয়া যাচ্ছে।

  • পেপটিক আলসার রোগীদের ক্ষেত্রে বংশগত প্রভাব লক্ষ করা যায়। দেখা গেছে যাদের রক্তের গ্রুপ ‘o’ তাদের ডিওডেনাল আলসার হওয়ার সম্ভাবনা বেশী থাকে।
  • পাকস্থলীতে অতিরিক্ত এসিড নিঃসরণ যা সাধারণত অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা-হতাশা, চা-কফি, মশলা জাতীয় খাবার এবং ধূমপান, জর্দা, এলকোহল প্রভৃতি বাড়িয়ে থাকে। এই অতিরিক্ত এসিড নিঃসরণের জন্য সাধারণত ডিওডেনাল আলসার হয়ে থাকে।
  • পাকস্থলীর মিউকাস মেমব্রেনের ক্ষমতা বা পুরুত্ব যা সাধারণত গ্যাস্ট্রিক আলসারে ঘটে
  • সময়মত খাবার না খওয়া, খাবার ঠিকমতো চিবিয়ে না খাওয়া।
  • সময় মতো না ঘুমানো বা রাত্র জাগা।
  • পাকস্থলীতে হেলিকো ব্যকটার পাইলোরি নামক জীবাণুর সংক্রমণ যা পেপটিক আলসার হতে সাহায্য করে এবং ক্ষত ভালো ভাবে শুকাতে বাধা দেয়।
  • কিছু ঔষধ যেমন: ব্যথা কমানোর ঔষধ সমূহ (এসপিরিন, ইনডোমেথাসিন, আইবুপ্রোপেন, ডাইক্লোফেনাক, কিটোপ্রোফেন ইত্যাদি) স্টেরয়েড জাতীয় ঔষধ সমূহ পেপটিক আলসার হতে বা সমস্যা বাড়াতে ভূমিকা রাখে।

উপসর্গ ও লক্ষণ (Symptom & Sign):

  • পেটব্যথা -পেপটিক আলসারের প্রধান লক্ষণ। ব্যথা সাধারণত পেটের উপরিভাগে হয় । কখনো কখনো রোগী একটা আঙ্গুল দিয়ে ব্যথার জায়গা নির্দেশ করে দিতে পারে। ব্যথার অনুভূতি একেক জনের কাছে একেক রকম। পাকস্থলীর আলসার হলে সাধারণত খাবার কিছু সময় পরে ব্যথা শুরু হয় এবং বমি করার পর বা পেট খালি হলে রোগী আরাম বোধ করে। আর ডিওডেনাল আলসার হলে খালি পেটে ব্যথা শুরু হয় এবং খাবার খাওয়ার পর ব্যথা কমে আসে। আবার অনেকেই মাঝরাতে পেট খালি হলে ব্যথার জন্য ঘুম ভেঙ্গে যায়, কিন্তু খাবার গ্রহণের পর ব্যথা চলে যায় এবং ঘুম হয়।
  • বমি- গ্যাস্ট্রিক আলসারের রোগীদের বমি হয় কিন্তু ডিওডেনাল আলসারের রোগীদের বমি সাধারণত কম হয়, তবে দীর্ঘকাল ভুগলে বমি হয়। একপর্যায়ে পেটে এত অস্বস্তি হয় যে, মুখে আঙ্গুল দিয়ে বমি করে রোগী স্বস্তি পেতে চায়। দীর্ঘস্থায়ী পেপটিক আলসারের ক্ষেত্রে রক্ত বমি হতে পারে, পায়খানা হতে পারে আলকাতরার মতো কালো। দীর্ঘস্থায়ী পেপটিক আলসারের রোগীর বমির আর একটি বৈশিষ্ট্য হল এদের বমির সাথে কয়েকদিনের খাবার বেরিয়ে আসে।
  • কালো (আলকাতরার মতো) পায়খানা- সাধারণত ডিওডেনাল আলসার রোগীদের হয়ে থাকে।
  • ক্ষুধা- গ্যাস্ট্রিক আলসারের রোগীরা খাবার খেতে ভয় পায়। কারণ খাবার খেলে তাদের ব্যথা বেড়ে যায় কিন্তু ডিওডেনাল আলসারের রোগীদের ক্ষেত্রে উল্টোটা ঘটে। এদের ক্ষুধা বেশী থাকে।
  • ওজন- গ্যাস্ট্রিক আলসারের রোগীদের শরীরের ওজন কমে কিন্তু ডিওডেনাল আলসারের রোগীদের ওজন কমে না বরং বেশী বেশী খাদ্য গ্রহণের ফলে ওজন অনেক সময় বেড়ে যায়।
  • কারো কারো বুকজ্বালা পোড়া, টক ঢেকুর ওঠা, পেট ফাঁপা, হজমে অসুবিধা হওয়া ক্ষুধামন্দা ইত্যাদি দেখা দিতে পারে।
  • কিছুদিন পর পর পেটব্যথা ও সমস্যাগুলোর পুনরাবৃত্তি ঘটে। আস্তে আস্তে পুনরাবৃত্তি দ্রুত ঘটতে থাকে। এমন সময় আসে যখন প্রায়ই পেটের উপরিভাগে ব্যথা হয়।

রোগ নির্ণয় (Diagnosis):

রোগের লক্ষণ ভালোভাবেই শুনে রোগ নির্ণয় করা যায় তবে নিশ্চিত হবার জন্য কিছু পরীক্ষা করা হয়।

  • পরিপাক তন্ত্রের উপরিভাগের এন্ডোসকপি অথবা বেরিয়াম মিল এক্সরে।
  • এইচ পাইলোরি পরীক্ষা-র‍্যাপিড ক্লো টেস্ট অথবা রক্ত পরীক্ষায় ধরা পড়ে।

সতর্কতা (Alertness):

  • পেপটিক আলসার হঠাৎ করে বেড়ে গেলে রোগীকে পূর্ণ বিশ্রাম নিতে হবে।
  • সময়মত খাবার খেতে হবে এবং পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে। যে সব খাবার খেলে রোগী অস্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে তা খাবে না । অতিরিক্ত মশলা তেল যুক্ত ঝাঁঝালো খাবার পরিহার করতে হবে।
  • ধূমপান-জর্দা-অ্যালকোহল অবশ্যই সম্পূর্ণ বর্জন করতে হবে (কমালে চলবে না)।
  • চা-কফি খুব বেশী হলে ২ কাপ প্রতিদিন ভরা পেটে খাওয়া যেতে পারে।
  • ব্যথা নাশক ঔষধ এবং স্টেরয়েড খালিপেটে খাওয়া যাবে না এবং সাথে পেপটিক আলসার কমানোর ঔষধ খেতে হবে।

জটিলতা (Complication):

হঠাৎ ও তীব্র পেপটিক আলসার থেকে পারফোরেশন বা ফুটো হয় এবং পরে পেরিটোনাইটিস হতে পারে। আবার হেমোরেজ বা রক্তপাত হয়ে বমির সাথে রক্ত এবং আলকাতরার মতো কালো পায়খানা, পরে শকে চলে যেতে পারে। ইন্টারমিডিয়েট পেপটিক আলসার থেকে কখনো কখনো ফোড়া হয়। দীর্ঘমেয়াদী ডিওডেনাল আলসার থেকে পাইলোরিক স্টেনোসিস হতে পারে। দীর্ঘমেয়াদী গ্যাস্ট্রিক আলসার থেকে কারো কারো ক্যান্সার হতে পারে কিন্তু দীর্ঘমেয়াদী ডিওডেনাল আলসার থেকে ক্যান্সার হয় না।

চিকিৎসা, লক্ষণ ও তার রেপার্টরি রুব্রিকঃ (পুর্নাঙ্গ ভাবে রোগ আরোগ্য করা হোমিওপ্যাথির বলিষ্ঠ দাবি)

হোমিওপ্যাথিতে পেপটিক আলসার রোগের চিকিৎসার জন্য নিচে দেয়া ৫০ টি লক্ষণ ও তার রেপার্টরি রুব্রিক অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। প্রতিটি লক্ষণের আলাদা আলাদা ঔষধ হোমিওপ্যাথিতে রয়েছে। যারা চিকিৎসা নিতে চান তারা এ লক্ষণ সমূহের কোনটা আপনার রোগের সাথে মিলে তা ডাক্তারকে স্পষ্ট করে জানালে চিকিৎসা পেতে সহজ হবে।

Stomach

  1. ULCERS (64) 2 aloe, 1 alum, 1 anac, 2 arg-n, 2 ars, 2 atro, 1 bell, 1 bism, 1 cadm, 1 calc, 2 calc-ar, 1 calc-p, 2 calen, 1 carb-v, 1 carc, 1 caust, 1 chin, 1 crot-h, 2 cur, 2 dys-co, 1 ferr-acet, 2 ger, 1 graph, 1 grin, 1 ham, 3 HYDR, 1 iod, 1 ip, 3 KALI-BI, 2 kali-c, 1 kali-i, 2 kreos, 3 LYC, 1 med, 2 merc-c, 2 mez, 1 morg, 1 morg-g, 1 nat-c, 1 nat-m, 1 nat-p, 1 nat-s, 2 nit-ac, 3 NUX-V, 1 op, 1 petr, 1 ph-ac, 3 PHOS, 3 PSOR, 1 puls, 1 ran-b, 1 rat, 1 ruta, 3 SEP, 1 sil, 1 sin-a, 1 sul-ac, 1 sulph, 1 symph, 1 syph, 1 thuj, 2 uran-n, 1 vario, 1 verat
  2. ULCERS anger, from (3)
  3. ULCERS bleeding, with (3)
  4. ULCERS burning, with (3)
  5. ULCERS intolerable pains, with (2)
  6. ULCERS painless (1)
  7. ULCERS ulcers, esophagus (1)
  8. ULCERATIVE, pain (18) 2 acet-ac, 1 alum, 1 anan, 2 arg-n, 1 cann-s, 1 cast-eq, 3 CAUST, 1 gamb, 1 hell, 2 lach, 2 mag-c, 2 mag-m, 1 merc-c, 2 nat-m, 2 rat, 2 rhus-t, 1 spong, 1 stann
  9. ULCERATIVE, pain coughing, on (1)
  10. ULCERATIVE, pain dinner, after (1)
  11. ULCERATIVE, pain eating amel. (1)
  12. ULCERATIVE, pain evening, lying (1)
  13. ULCERATIVE, pain motion, on (1)
  14. ULCERATIVE, pain pressing (1)
  15. ULCERATIVE, pain touch, on (1)
  16. ULCERATIVE, pain turning in bed, on (1)
  17. GASTRITIS, inflammation (67) 1 acon, 2 aeth, 1 all-c, 1 alum, 1 alumn, 2 ant-c, 3 ANT-T, 2 apis, 2 arg-n, 3 ARS, 1 ars-i, 1 asar, 1 aur, 1 aur-m, 1 bar-c, 1 bar-i, 2 bar-m, 3 BELL, 2 bism, 1 brom, 3 BRY, 2 cact, 2 camph, 2 canth, 1 carb-ac, 1 carb-an, 1 chel, 1 cic, 2 cocc, 1 colch, 1 cund, 1 cupr, 2 dig, 3 EUPH, 1 ferr-p, 2 graph, 1 hell, 2 hydr, 1 hydr-ac, 3 HYOS, 1 indg, 1 iod, 2 ip, 1 kali-ar, 1 kali-i, 1 kali-n, 1 kali-s, 2 lac-d, 1 lach, 1 laur, 3 LYC, 1 mez, 3 NUX-V, 1 ox-ac, 3 PHOS, 2 plb, 1 puls, 1 ran-b, 1 ran-s, 1 sabad, 2 sang, 2 sec, 1 squil, 1 stram, 2 ter, 3 VERAT, 2 verat-v
  18. GASTRITIS, inflammation acute (25)
  19. GASTRITIS, inflammation alcohol abuse, from (9)
  20. GASTRITIS, inflammation chronic (37)
  21. GASTRITIS, inflammation cold, after taking (3)
  22. GASTRITIS, inflammation cold, after taking overheated, when (3)
  23. GASTRITIS, inflammation pylorus (1)
  24. PAIN, stomach gastritis, chronic with (8)

Intestines

  1. ULCERS (20) 2 arg-n, 3 ARS, 1 bapt, 2 calc, 3 CARB-V, 2 coloc, 2 kali-bi, 1 merc, 1 merc-c, 1 lept, 2 lyc, 1 nat-p, 3 NIT-AC, 1 phos, 1 plb, 1 sal-ac, 1 sin-n, 1 sulph, 2 ter, 1 uran-n
  2. ULCERS bleeding, with (1)
  3. ULCERS chronic, with liver disorder (1)
  4. ULCERS chronic, with liver disorder vomiting of ingesta, hectic fever and emaciation (1)
  5. ULCERS corroding, with, stinging pain (1)
  6. ULCERS diarrhea, causes (1)
  7. ULCERS diarrhea, causes chronic, hectic fever, with (1)
  8. ULCERS diarrhea, causes tuberculosis, in (1)
  9. ULCERS duodenal (9)
  10. ULCERS enterocolitis, with (1)
  11. ULCERS peyer’s gland, of (1)
  12. ULCERS remittent fever, in infantile (1)
  13. ULCERS round, with blackish fundus, in small intestines (1)
  14. ULCERS tuberculosis, with (1)
  15. ULCERS typhoid fever, in (4)
  16. ULCERS upper part of, diphtheria, in (1)

Feet

  1. BURNING, pain gastritis, in (1)

Heart

  1. ENDOCARDITIS gastritis, with (1)
  2. HEARTBEATS, violent endocarditis, with gastritis, in (1)

Liver

  1. SHARP, pain gastritis, in (1)

Mind

  1. MOANING, anxious stupor, with broken, in child with gastritis mucosa (1)

Pulse

  1. ABSENT gastritis, in (1)
  2. HARD, pulse gastritis, in acute, after taking cold (1)
  3. LOW, pulse, gastritis mucosa, colic in (1)
  4. QUICK, pulse gastritis, in acute, after taking cold (1)
  5. TREMULOUS, pulse hematemesis gastritis, in (1)

 

লক্ষণ সমূহের তথ্য সূত্রঃ মার্ফি রেপার্টরি।

নোটঃ ঔষধের অপপ্রয়োগ হতে পারে, এ কারণে অনেক স্থানে ঔষধের নাম দেয়া হয়নি। ডাক্তার গন প্রদেয় ইংরেজি রুব্রিক দিয়ে রেপার্টরি থেকে ঔষধের নাম সমূহ খুঁজে পাবেন। যে ঔষধের নামের পার্শে ৩ লিখা আছে তা প্রথম গ্রেড, ২ হলে দ্বিতীয় গ্রেড, ১ হলে তৃতীয় গ্রেড এর ঔষধ বুঝতে হবে। বেরিকেট ( ) দেয়া স্থানের সংখ্যা, ঔষধ সংখ্যা হিসাবে বিবেচ্য।  সফল চিকিৎসা পেতে অথবা চিকিৎসা দিতে লিংকে ক্লিক করে বর্ণনাটি পড়ুন।

 

 

About The Author

M.D (AMCC, Kolkata, India) M.M (B.M.E.B) D.H.M.S (B.H.B)

Related posts

10 Comments

  1. KarlyIBurket

    Hi there, just became mindful of your site through Google, and discovered that it’s
    really informative. I’m gonna look out for brussels.
    I will be grateful in the event you continue this
    from now on. Numerous men and women be took advantage of your writing.
    Cheers!

    Reply
  2. MarkIPeetz

    Greate article. Keep posting such kind of info on your page.
    Im really impressed by your site.
    Hello there, You’ve done a fantastic job. I’ll certainly digg it and individually suggest to my
    friends. I’m sure they’ll be benefited from this website.

    Reply
  3. sikis izle

    I simply want to mention I am just newbie to blogging and site-building and seriously savored your page. More than likely I’m likely to bookmark your blog . You certainly come with amazing article content. Bless you for revealing your web site.

    Reply
  4. Rafiqul Islam

    I am suffering of deodnal ulcer deases so please help me. I have digonosis al things Such as Andos copy 2 times and coronsc copy 1 time after doctor take dicisioin have to deodenal and fbd deases

    Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *